মাত্র ২০ বছর বয়সেই এই ছেলের আয় বছরে ২০ কোটি! জানেন কীভাবে?

0

সবে ১৯ পেরিয়ে ২০ বছরে পড়েছে এই ছেলে৷ কিন্তু এই বয়সেই তার জীবনে গল্প, বা বলা ভাল তার কৃতিত্বের কাহিনি যে কোনও রূপকথার গল্পকেও হার মানিয়ে দিতে পারে অনায়াসেই৷

আপনি বলবেন একটা বিশ বছরের ছেলে কীই বা করতে পারে? হয়তো পরীক্ষায় বড় ভাল রেজাল্ট করতে পারে৷ অথবা বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে দেদার মজা করতে পারে৷ তবে না এই ছেলে সবার চাইতে আলাদা৷ সবার জন্য একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তেলেঙ্গানা নিবাসী ২০ বছরের সঙ্কর্ষ চন্দ৷

স্টার্ট আপ ব্যবসায় বছরে ২০ কোটি টাকা রোজগার সঙ্কর্ষর৷ কিন্তু কী করে? তার এই বিপুল আয়ের উৎসই বা কী? এই বিষয়ে জানতে গেলে পিছিয়ে যেতে হবে আরও ৬ বছর আগে৷ তখন সঙ্কর্ষের বয়স মাত্র ১৪ বছর৷

তার অর্থনীতি নিয়ে ঝোঁক ছিল সেই বয়স থেকেই৷ সেই বয়সে বড় বোনকে রাজি করিয়েছিলেন ডিম্যাট অ্যাকাউন্টে বিনিয়োগ করার জন্য৷ স্কলারশিপে পাওয়া ২০০০ টাকা বিনিয়োগ করেছিলেন সঙ্কর্ষ৷ সেই থেকে বিনিযোগের প্রতি তার ঝোঁক শুরু৷

এরপর ফিনান্সিয়াল টেকনোলজি নিয়ে তার ঝোঁক দিন দিন বেড়েই চলছিল৷ সেই বয়স থেকেই বিভিন্ন কোম্পানির গ্রোথে কীভাবে হয়েছে, তাদের ব্যালান্স শীট সম্পর্কে খুঁটিনাটি তথ্য যাচাই করতে শুরু করেন৷ এরই সঙ্গে দুলাভাইয়ের সাহায্য নিয়ে চিনা এবং মার্কিন কোম্পানির স্টকে বিনিয়োগ করতে থাকেন৷

এরপর থেকে গ্রেটার নয়ডার বেনেট ইউনিভার্সিটি থেকে বি টেক৷ আর এই ইউনিভার্সিটির এক সদস্যই তাকে স্টার্ট আপ খোলার উৎসাহ দেন৷ বিভিন্ন কোম্পানি বিনিয়োগ করা সমস্ত অর্থ দিয়ে এ বার স্টার্ট আপ খুলে ফেলেন সঙ্কর্ষ৷

তখন তার বয়স ১৮৷ স্টার্ট আপের নাম ‘সভার্ত’৷ আর সঙ্কর্ষ ইংল্যান্ড, ইউএসএ, ডেনমার্ক এবং ভারতের মতো দেশের বিভিন্ন নামী কোম্পানির ইনভেস্ট স্ট্র্যাটেজি কী হবে তা ঠিক করে দিতে শুরু করেন৷

এর পাশাপাশি নবীন বিনিয়োগকারীদের বিনিযোগের স্ট্র্যাটেজি কী হবে তা ঠিক করে দেয় এমন বিভিন্ন ফিনান্সিয়াল ওয়েবসাইটেও কাজ করতে থাকেন৷ আসলে বিনিয়োগের এই স্ট্যাটেজি সম্পর্কে তার এই সম্যক জ্ঞানই তাকে এই সফলতার আসলে আসীন করেছে৷

Leave A Reply