কাফনের কাপড় আর জানাজা ছাড়াই দাফন করা হয়েছিল কর্নেল জামিলকে

0

শেখ মুজিবকে বাঁচাতে গিয়ে নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন কর্নেল জামিল আহমেদ মিঠু। কিন্তু গুলি করে জামিলকে হত্যার পর তাকেই দাফন করা হয় কাফনের কাপড় আর জানাজা ছাড়া। সম্প্রতি গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিছেন কর্নেল জামিলের কন্যা আফরোজা জামিল কঙ্কা।

সাক্ষাৎকারের কঙ্কা বলেন, রক্তাক্ত বিছানার চাদর মুড়িয়ে সেনা প্রহরায় সমাহিত করা হয় জামিলক। কিন্তু আওয়ামী লীগ চারবার ক্ষমতায় থাকলেও কর্নেল জামিলের নামে সেনানিবাস বা এর বাইরে কোনো স্থাপনার নামকরণ হয়নি। এমনকি কোনো স্মৃতিস্তম্ভও নির্মাণ করা হয়নি।

কঙ্কা জানান, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ধানমণ্ডিতে রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাসায় হামলা হলে কর্তব্যের ডাকে বঙ্গবন্ধুকে বাঁচাতে ছুটে যান রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব কর্নেল জামিল আহমেদ।

শেখ মুজিবকে বাঁচাতে গিয়ে নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন কর্নেল জামিল আহমেদ মিঠু। কিন্তু গুলি করে জামিলকে হত্যার পর তাকেই দাফন করা হয় কাফনের কাপড় আর জানাজা ছাড়া। সম্প্রতি গণমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিছেন কর্নেল জামিলের কন্যা আফরোজা জামিল কঙ্কা।

সাক্ষাৎকারের কঙ্কা বলেন, রক্তাক্ত বিছানার চাদর মুড়িয়ে সেনা প্রহরায় সমাহিত করা হয় জামিলক। কিন্তু আওয়ামী লীগ চারবার ক্ষমতায় থাকলেও কর্নেল জামিলের নামে সেনানিবাস বা এর বাইরে কোনো স্থাপনার নামকরণ হয়নি। এমনকি কোনো স্মৃতিস্তম্ভও নির্মাণ করা হয়নি।

কঙ্কা জানান, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ধানমণ্ডিতে রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাসায় হামলা হলে কর্তব্যের ডাকে বঙ্গবন্ধুকে বাঁচাতে ছুটে যান রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব কর্নেল জামিল আহমেদ।

Leave A Reply