আশরাফুলের দাম ১৮ লাখ! যে দলে নিতে চায়

মোহাম্মদ আশরাফুল ২০১৩ সালে বিপিএলে ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকায় পাঁচ বছর নিষিদ্ধ হন। ২০১৬ সালে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার অনুমতি পান। কিন্তু তখনও জাতীয় দল এবং ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগের দরজা বন্ধ ছিল তার জন্য। সেই নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ১৩ আগস্ট ফিরেছেন ৩৪ বছর বয়সী অ্যাশ।

বিপিএলের প্লেয়ার ড্রাফট চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। প্লেয়ার ড্রাফটে নাম আছে আশরাফুলের। তবে এবার আশরাফুলকে কেনার জন্য যে দলের নাম আছে সবার আগে সেটা হচ্ছে সিলেট সিক্সার্স।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে তারাও দলে নিতে চায় আশরাফুলকে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কোচ, অধিনায়ক ও সংশ্লিষ্টরা প্লেয়ার্স ড্রাফট সম্পর্কে পরিকল্পনা সাজাত সম্প্রতি একত্রিত হয়েছিলেন।

সেখানে কথা উঠে আশরাফুলের বিষয়ে। দলের আইকন ক্রিকেটার হিসেবে তামিম ইকবালকে ধরে রেখেছে। ধরে রেখেছে আরেক ওপেনার ইমরুল কায়েস এবং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনকে। তাছাড়াও পাকিস্তানের অলরাউন্ডার শোয়েব মালিককে ধরে রেখেছে তারা।

এছাড়া দুই বিদেশি হিসেবে চুক্তি করেছে ইংল্যান্ডের অলরাউন্ডার লিয়াম ডসন এবং শ্রীলঙ্কান অলরাউন্ডার অ্যাশেলা গুনারত্নের সঙ্গে। প্লেয়ার ড্রাফট থেকে বাকি ক্রিকেটারদের তুলেনিতে সম্প্রতি এক সাথে আলোচনায় বসেছিলেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কর্ণধার নাফিসা কামাল, কোচ সালাউদ্দিন ও অধিনায়ক তামিম।

ঢাকার র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলে বসবে খেলোয়াড় কেনার জমজমাট এই হাট! চূড়ান্ত সেই প্লেয়ার ড্রাফটে মোহাম্মদ আশরাফুল কোন দল পাবেন কিনা; পেলে কোন দল পাবেন তা জানা যাবে আজ।

প্লেয়ার ড্রাফটের জন্য মোট ছয়টি ক্যাটাগরিতে ১৫৫ জন বাংলাদেশি ক্রিকেটারকে তালিকাভুক্ত করেছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সেখানে আছে আশরাফুলের নামও। ‘এ+’, ‘এ’, ‘বি’, ‘সি’, ‘ডি’ ও ‘ই’ এই ছয় ক্যাটাগরির ওপর ভিত্তি করেই নির্ধারণ করা হয়েছে খেলোয়াড়দের মুল্য। গ্রেডিংয়ে ‘এ+’ ক্যাটাগরিতে আছেন শুধু মুশফিকুর রহিম। তাঁর ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে ৪০-৬০ লাখ টাকা।

‘এ’ ক্যাটাগরিতে থাকা সাতজন ক্রিকেটার হলেন এনামুল হক বিজয়, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আবু হায়দার রনি, আবু জায়েদ রাহি, শফিউল ইসলাম ও রুবেল হোসেন। তাঁদের ভিত্তি মূল্য ২৫ লাখ টাকা।

‘বি’ ক্যাটাগরিতে আছেন ১৭ জন ক্রিকেটার। তাঁদের মধ্যে জাতীয় দলের হয়ে খেলা শুভাগত হোম, শাহরিয়ার নাফিস, তাসকিন আহমেদ, তাইজুল ইসলাম, নুরুল হাসান সোহান, আব্দুর রাজ্জাক, ও নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ওঠা মোহাম্মদ আশরাফুলের মত ক্রিকেটাররা রয়েছেন। তাঁদের ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে ১৮ লাখ টাকা।

এছাড়া ‘সি’ ক্যাটাগরিতে থাকা খেলোয়াড়দের ১২ লাখ, ‘ডি’ তে থাকা ক্রিকেটারদের ৮ লাখ এবং সর্বশেষ ‘ই’ ক্যাটাগরিতে থাকা ক্রিকেটারের গ্রেডিং ৫ লাখ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

এদিকে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ এবং তারুণ্যের আবহ নিয়ে শেষ হয়েছে ওয়ানডে সিরিজ। অপেক্ষা এখন টেস্ট সিরিজের। দেখতে দেখতে চলে আসছে বিপিএল শুরুর সময়ও।

বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের ঘোষণা অনুযায়ী জাতীয় নির্বাচন পেছালেও বিপিএল পূর্বঘোষিত সূচি অর্থাৎ পাঁচ জানুয়ারিই শুরু হবে। দলগুলোর প্রস্তুতি কার্যক্রম সুচারুরূপে সম্পাদনের জন্য প্লেয়ার্স ড্রাফট এগিয়ে আনা হয়েছে।

রোববার পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে অনুষ্ঠিত হবে এবারের প্লেয়ার্স ড্রাফট। প্রতিযোগী দলগুলো নিলামের মাধ্যমে না হলেও, ড্রাফট সিস্টেমে পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন ক্যাটাগরির ক্রিকেটার দলে টানা সুযোগ পাবেন।

প্লেয়ার্স ড্রাফট নিয়ে ক্রিকেট অনুরাগীদের মধ্যে একটা ধুম্রজাল রয়েছে। কেউ কেউ মনে করে প্লেয়ার্স ড্রাফট বুঝি খোলা নিলাম। আসলে বিষয়টি মোটেও তেমন নয়। এখানে নিলামে দর কষাকষির কোনো প্রশ্নই থাকে না।

ব্যাপারটা এরকম প্রথমে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে প্রতিটি ক্যাটাগরির জন্য ক্রম বাছাই করা হয়। তারপর সেই ক্রম অনুযায়ী প্রতিটি ক্যাটাগরির খেলোয়াড় বাছাই করে দলগুলো। খোলা নিলাম যেখানে দর কষাকষির ব্যাপার সেখানে প্লেয়ার্স ড্রাফট পুরোটাই ভাগ্যনির্ভর।

এ কারণে মূলত প্লেয়ার্স ড্রাফটের দিন খুব বেশি কিছু করণীয় থাকে না। নিজেদের ক্রম অনুসারে খেলোয়াড় ডেকে নিলেই হয়ে যায় দল গোছানো।

নির্দিষ্ট দিনে এই ঝামেলা এড়াতে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টগুলোতে অংশগ্রহণকারী দলগুলো আগেই ঠিক করে ফেলে কোন ক্রম পেলে কোন খেলোয়াড়কে ডাকবে তারা। প্লেয়ার্স ড্রাফটের বহুল প্রচলিত ধারাই বলা চলে এটিকে।

সে ধারা এবার বজায় রেখেছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও আগেভাগেই নিজেদের পরিকল্পনা সাজিয়ে ফেলেছে অংশগ্রহণকারী তিনটি দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, খুলনা টাইটানস এবং সিলেট সিক্সার্স। যে কারণে প্লেয়ার্স ড্রাফটের দিন অর্থাৎ রোববার সকালে আর বাড়তি চাপ নিতে হবে না এ তিনটি দলকে।

বিপিএলের প্লেয়ার ড্রাফট অনুষ্ঠানটি হোটেল রেডিসন ব্লুত থেকে অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে জিটিভি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*