এই মাছটির দাম আড়াই কোটি ? দেখলে চমকে যাবেন

প্রতিদিন সকালে বাজারে গিয়ে আপনি খোঁজেন বাজারের সবথেকে সেরা মাছটা। খাওয়ার পাতে চওড়া সাইজের মাছের দাগা পছন্দ করেন অনেকেই। পকেটের রেস্ত অনুযায়ী মাছের দরদাম করে পছন্দের কাতলা, বাগদা, ইলিশটা ব্যাগবন্দি করতে পেলেই স্বস্তির নিঃশ্বাস। কিন্তু তা বলে একটা মাছের দাম আড়াই কোটি টাকা? বিষয়টা একটু বাড়াবাড়ি নয় কি?

বাড়াবাড়ি হলেও চীন দেশের ধনী ব্যক্তিরা আখচারই একটি মাছের পেছনে কোটি কোটি টাকা ব্যয় করতে দ্বিধাবোধ করেন না। তাও এই মাছ কেবলমাত্র খাওয়ার জন্য নয়। অ্যাকোরিয়ামে সাজিয়ে রাখার জন্য। এই বিশেষ মাছটির নাম হল, ‘ড্রাগন ফিশ’।

বিশ্বের বহু কোটিপতির বহু ধরনের শখ থাকে, একথা ঠিকই। তার একটি হলো এই মাছ পালন। বিশেষ করে চীনের কোটিপতিদের অন্যতম শখ এখন এই মাছকে ঘিরে। এটা নাকি তাদের স্ট্যাটাস সিম্বল! তিন লাখ ডলার পর্যন্ত পৌঁছায় কোনো কোনো মাছের দাম।

আশির দশকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় প্রায় তিন ফুট লম্বা এই ড্রাগন ফিশগুলির প্রজনন শুরু হয়েছিল। আগে এগুলো ঠিক পোষ্য মাছ ছিল না। হঠাৎ রটে গেল, মাছগুলো বাড়িতে রাখলে নাকি সমৃদ্ধি বাড়ে, বাড়ে ধনসম্পদ। ব্যাস তারপরেই শুরু হয়ে গেল এই শখের।

তার পরই মাছগুলোকে অ্যাকোরিয়ামে রাখা শুরু হলো।
মাছগুলোকে নিয়ে পাগলামি এত বাড়াবাড়ি পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, তাদের চেহারা আরো সুন্দর করতে প্লাস্টিক সার্জারিও করা হচ্ছে। মাছগুলোর চোখ বাঁকা হলে কিংবা, মাছের মুখ মালিকের পছন্দ না হলে মোটামুটি পাঁচ থেকে ছয় হাজারের মধ্যে সার্জারি করার ব্যবস্থাও রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*